Sunday , 17 February 2019

ভেদরগঞ্জে ৪ দিনে ৬ বাল্য বিয়ে বন্ধ করলেন ইউএনও

মইনুল ইসলাম : শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলায় ছয় স্কুল ছাত্রীর বাল্য বিয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাব্বির আহম্মেদ। গত চার দিনে ওই স্কুল ছাত্রীদের বিয়ের আয়োজন করেন পরিবারের সদস্যরা। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উপস্থিত হয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেন।
ভেদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্র জানায়, শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার দক্ষিন তারাবুনিয়া ইউনিয়নের কিরননগর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী শাহানাজ আক্তার (১৩) ও রাজিয়া খাতুন (১৪) এর বিয়ের আয়োজন করেন পরিবারের সদস্যরা। একইদিনে সখিপুর ইউনিয়নের সখিপুর ইসলামিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেনীর ছাত্রী রোকসানা আক্তারের (১৬) বিয়ের আয়োজন করা হয়। ওই তিন ছাত্রীর বিয়ের আয়োজন করা হয়েছিল ১৯ এপ্রিল বৃহস্পতিবার। পরেরদিন শুক্রবার বিয়ের আয়োজন করা হয়েছিল ডিএম খালী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেনীর ছাত্রী সেলিনা আক্তার (১৬) এর। রোববার (২২ এপ্রিল) বিয়ের আয়োজন করা হয়েছিল চরভয়রা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেনীর ছাত্রী শারমীন জাহান ও একই উপজেলার তারাবুনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী মীম আক্তার হাফসার। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাব্বির আহম্মেদ স্কুল ছাত্রীদের বাড়িতে উপস্থিত হন। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের প্রতিনিধি, বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সহায়তায় শিক্ষার্থীদের পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলে বিয়ে বন্ধ করে দেন। ওই স্কুল ছাত্রীদের বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের হাতে তুলে দেয়া হয়। পরিবারের সদস্যরা ইউএনওকে প্রতিশ্রুতি দেন প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত তাদের বিয়ে দেয়া হবে না।
এক স্কুল ছাত্রীর মা রাবেয়া বেগম বলেন, আমরা গরিব মানুষ, সংসারে অভাব। তাছাড়া সমাজে নিরাপত্তার অভাব। নানা বিষয় চিন্তা করে মেয়ের বিয়ের আয়োজন করেছিলাম। প্রশাসনের কর্মকর্তারা বাল্য বিয়ের কুফল সম্পর্কে আমাদের বুঝিয়েছেন। মেয়ে প্রাপ্ত বয়স্ক হলে বিয়ে দেব এমন প্রতিশ্রুতি দিয়েছি।
ভেদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাব্বির আহম্মেদ বলেন, স্কুল ছাত্রীদের বিয়ে হচ্ছে এমন খবর পেলেই বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের নিয়ে ছাত্রীদের বাড়িতে ছুটে যাই। পরিবারের সদস্যদের বাল্য বিবাহের কুফল সম্পর্কে অবহিত করি। তখন তারা বিয়ে বন্ধ রাখতে রাজি হয়। চরাঞ্চল হওয়ায় ভেদরগঞ্জ উপজেলায় বাল্য বিয়ের প্রভাব বেশি। আমরা বাল্য বিয়ে শুণ্যের কোঠায় নামিয়ে আনতে চেষ্টা করছি।
শরীয়তপুর২৪/ভেদরগঞ্জ/নারী ও শিশু/২৩ এপ্রিল, ২০১৮ খ্রি:


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*