Sunday , 17 February 2019

জাজিরায় শিক্ষকের প্রহারে পরীক্ষার হল থেকে হাসপাতালে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী

শরীয়তপুর২৪ রিপোর্ট ॥ ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের নির্দয় প্রহারে পরীক্ষা না দিয়েই পরীক্ষার হল থেকে হাসপাতালে যেতে হয়েছে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী রিয়ামনিকে। সোমবার দুপুরে শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার পালেরচর ইউনিয়নের নওপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। আহত ছাত্রী রিয়ামনি বর্তমানে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছে।
পরিবারের অভিযোগ ও বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, জাজিরা উপজেলার সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আজ সোমবার থেকে ১ম সাময়িক পরীক্ষা শুরু হয়েছে। আজ ছিল ইংরেজী পরীক্ষা। পরীক্ষা দেয়ার জন্য রিয়ামনি বেলা ১২ টার দিকে স্কুলে আসে। এ সময় বেঞ্চে বসা নিয়ে অন্য পরীক্ষার্থীদের সাথে রিয়ামনির ধাক্কাধাক্কি হয়। খবর পেয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো: ইউসুফ আলী কক্ষে প্রবেশ করে রিয়ামনিকে বেদম প্রহার করেন। এতে রিয়ামনি অসুস্থ হয়ে পড়লে সাথে সাথে তাকে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্রেক্সে নিয়ে ভর্তি করা হয়।
এ ঘটনায় রিয়ামনির বাবা আব্দুর রাজ্জাক মুন্সী জাজিরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাহেলা রহমাতুল্লাহ বিষয়টি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে জানান। বিষয়টি তদন্তের জন্য তাৎক্ষণিকভাবে এক সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জাজিরা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস।
রিয়ামনির বাবা আব্দুর রাজ্জাক মুন্সী বলেন, মেয়েটির আজকে ইংরেজী পরীক্ষা ছিল। অথচ, পরীক্ষা দেয়ার পরিবর্তে তাকে হাসপাতালে শুয়ে থাকতে হচ্ছে। এই শিক্ষক এর আগেও এই ধরণের ঘটনা ঘটিয়ে মাফ চেয়েছিলেন। আমি তার উপযুক্ত বিচার চাই।
অভিযুক্ত ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো: ইউসুফ আলী বলেন, ‘এটা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। আমি কাউকে মারধর করিনি।’
এর আগেও অন্য এক ছাত্রীকে মারধরের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এর আগে আমি ভুল করেছিলাম। তখন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমাকে ক্ষমা করে দিয়েছিলেন।’
এ বিষয়ে জাজিরা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হাফিজ উদ্দীন বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর সহকারি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সুকন্ঠ ভক্তকে বিষয়টি তদন্ত করে আগামী তিন দিনের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। প্রতিবেদনে সত্যতা পেলে বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শরীয়তপুর২৪/জাজিরা/অপরাধ/শিক্ষা/২৩ এপ্রিল, ২০১৮ খ্রি:


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*